রবিউল আওয়াল


ইসলামি ইতিহাসে রবিউল আওয়াল একটি অত্যন্ত উল্লেখযোগ্য মাস, কারণ এই মাসেই সমগ্র বিশ্বের সর্বশেষ চুড়ান্ত নবি মুহাম্মাদ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম জন্মগ্রহণ করেছিলেন। মহানবির জন্মের পূর্বে শুধু আরব উপদ্বীপই নয়, বরং তথাকথিত সভ্য রোম ও ফরাসি জাতিও নিমজ্জিত ছিল অজ্ঞতা, বর্বরতা, কুসংস্কার, অন্যায়-অত্যাচার ও অশান্তির মধ্যে। মহানবি সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম তাওহিদের নিরঙ্কুশ সত্যিটা নিয়ে আগমন করেছিলেন। কেবল ঈমানই দৃঢ় ভিত্তি স্থাপন করতে পারে শিক্ষা, শান্তি ও নিরাপত্তার প্রকৃত ধারণার। এই ঈমানই মানবতাকে অজ্ঞতা, বর্বরতা ও কুসংস্কার থেকে মুক্ত করেছিল এবং বিশ্বময় ছড়িয়ে দিয়েছিল সত্যিকার জ্ঞানের আলো। [১]

 

বিষয়সূচি

 

কুরআন

নিশ্চয়ইআল্লাহর বিধান ও গণনায় মাস বারোটিআসমানসমূহ ও পৃথিবী সৃষ্টির দিন থেকে। তন্মধ্যে চারটি সম্মানিত। এটিই সুপ্রতিষ্ঠিত বিধান; সুতরাং এর মধ্যে তোমরা নিজেদের প্রতি অত্যাচার করো না। আর মুশরিকদের সাথে তোমরা যুদ্ধ করোসমবেতভাবে,যেমন তারাও তোমাদের সাথে যুদ্ধ করে যাচ্ছে সমবেতভাবে। আর মনে রেখো,আল্লাহ আল্লাহভীরুদেরসাথে রয়েছেন। [সুরা তাওবা: ৩৬] [২]

 

ইসলামি বর্ষপঞ্জীর মাসসমূহ

ইসলামি পঞ্জিকায় বারোটি মাস আছে, যেমন পবিত্র কুরআনে উল্লেখ আছে : “নিশ্চয়ইআল্লাহর বিধান ও গণনায় মাস বারোটিআসমানসমূহ ও পৃথিবী সৃষ্টির দিন থেকে। তন্মধ্যে চারটি সম্মানিত,……। [সূরা তওবা ৯:৩৬]

 

বারোটি মাস নিম্নরূপ :

১। মুহররম

২। সফর

৩। রবিউল আওয়াল

৪। রবিউস সানি  

৫। জুমাদাল উলা                  

৬। জুমাদাল উখরা  

৭। রজব

৮। শা'বান

৯। রমজান

১০। শাওয়াল

১১। যুলকা’দা

১২। যুলহিজ্জাহ্‌  [৩]

 

মহিমান্বিত মাসসমূহ

আল্লাহ্‌ তাআলা কুরআনের মধ্যে মোট বারোটি মাস এবং তন্মধ্যে চারটি মহিমান্বিত মাসের কথা বলেছেন এবং ওই মাসগুলির নাম উল্লেখ আছে পবিত্র হাদিসে, যা নিম্নে উল্লেখ করা হলো :

আবু বাকরাহ্‌ (রা.) বর্ণনা করেন, রসূলুল্লাহ্‌ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম বলেছেন : “বছরে বারো মাস, তন্মধ্যে চারটি হারাম (মহিমান্বিত), তিনটি যথাক্রমে যুলকা’দা, যুলহিজ্জাহ্‌, মুহাররাম এবং চতুর্থটি হলো রজব, যা জুমাদাল উখরা ও শা’বান মাসের মধ্যবর্তী মাস”। (বুখারি : ৩১৯৭, ৪৭০৮ ও ৫৫৫০; মুসলিম : ১৬৭৯ ও আবুদাউদ : ১৯৪৭)  [৪]

 

রবিউল আওয়ালের ঘটনাবলি

  • মহানবি মুহাম্মাদ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লামের জন্ম, ৫২ বা ৫৩ হিজরিপূর্ব – এপ্রিল ৫৭০ বা ৫৭১ খ্রিষ্টাব্দ।
  • মদ্যপানের অবৈধতা অবতীর্ণ হয়, রবিউল আওয়াল ৪র্থ হিজরি, আগস্ট ৬২৫ খ্রিষ্টাব্দ।
  • বিভিন্ন গযওয়া সংঘটিত হয়, যেমন বানু নুযাইর, বানি লাহ্‌য়ান, তাবুক ইত্যাদি।
  • অমুসলিমদের উপর জিযয়া ও কর জারি করেন, যারা দেশের সাধারণ নাগরিক হিসেবে বসবাস করার জন্য মুসলিমদের আক্রমণ থেকে নিরাপত্তা কামনা করত এবং দেশের প্রতিরক্ষা সামরিক বাহিনী থেকে রেহাই চাইত, ৯ম হিজরি।
  • উম্মুল মু’মিনীন মারিয়া (রা.) ইব্রাহিমের জন্ম দেন, কিন্তু পরবর্তীতে তিনি মারা যান।
  • এই পৃথিবী থেকে চিরবিদায় নেওয়ার পূর্বে রসূলুল্লাহ্‌ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম সর্বশেষ সালাত আদায় করেছিলেন ১২ রবিউল আওয়াল, ১১ হিজরি। [৫]
  • উপরোল্লেখিত ঘটনাবলির সঠিক তারিখ সম্পর্কে আল্লাহ্‌ তাআলাই ভালো জানেন।  

 

তথ্যসূত্র

[১] http://www.albalagh.net/general/rabi-ul-awwal.shtml

[২] http://quran.com/9/36

[৩] http://www.islamweb.net/emainpage/index.php?page=articles&id=155869

[৪] http://www.sunnah.com/search/four-are-sacred

[৫] http://history.muslimscholars.info/index.php?ID=7

372 Views
Correct us or Correct yourself
.
Comments
Top of page