ইসলামের দৃষ্টিতে বিবাহ


বিবাহ ও যুগলমিলন আল্লাহ্‌ তাআলার স্বীয় সৃষ্টির জন্য নির্ধারিত আইন। যুগলমিলন সাধারণত পশুপক্ষী ও শাকসব্জির জন্য প্রযোজ্য হয়। আর মানুষকে আল্লাহ্‌ তাআলা অন্যান্য সৃষ্টির উপর স্বতন্ত্র মর্যাদা দান করেছেন। মানুষের জন্য একটি সুন্দর নিয়ম নির্ধারণ করেছেন যাদ্বারা তাদের সম্মান ও সম্ভ্রম অক্ষুণ্ন থাকে। বৈধ বিবাহের মাধ্যমে তাদের সম্মান সুরক্ষিত থাকে। এমন একটি পদ্ধতি পুরুষ ও নারীর মধ্যে সম্পর্ককে সুরক্ষিত করে যার ভিত্তি স্থাপিত হয় পারস্পরিক শ্রদ্ধা ও অনুমতির উপর। সুতরাং একটি সুন্দর পদ্ধতিতে মানুষের প্রাকৃতিক প্রয়োজন নিবারিত হয় বংশধর সংরক্ষণের জন্য এবং মহিলাসমাজকে পণ্য সামগ্রী হওয়া থেকে সুরক্ষিত রাখার জন্য।  [১]

 

বিষয়সূচি

 

ইসলামি বিবাহ-আইন

ইসলামি আইন বলছে নারীদের বিবাহের পূর্বে তাদের অনুমতি নিতে হবে। মহানবি মুহাম্মাদ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম বলেন : “যুবতী-কুমারী মেয়ের বিবাহের ব্যাপারে তার অনুমতি নিতে হবে আর তার অনুমতি তার নীরবতা”। (সহি বুখারি ৯/১০১ ও ৭/৬৮) একদা এক মহিলা রসূলুল্লাহ্‌ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লামের নিকট এসে বললেন যে, তার পিতা তার সম্মতি ছাড়াই তার বিবাহ দিয়েছে। তিনি (সা.) তাকে তার বিবাহ ভঙ্গ করার অনুমতি দিলেন। তবে তিনি এটা করলেন না এবং বললেন : তিনি শুধু তাঁর অধিকার সুনিশ্চিত করতে চাচ্ছিলেন। ইসলামের দৃষ্টিতে একটি অকুমারি মহিলারও নিজের পছন্দের অধিকার আছে। (সহি বুখারি ৭/৬৭) [২]

 

বিবাহের উপকারিতা  

১। বিবাহ একটি সুস্থ পরিবেশ যার মাধ্যমে পরিবার পারস্পরিক সংযোগশীলতা ও প্রেম ভালোবাসা রক্ষা করে। তাছাড়া বিবাহ সতীত্ব রক্ষা করতে সাহায্য করে এবং মানুষকে নিষিদ্ধ কর্মে লিপ্ত হওয়া থেকে দূরে রাখে।

২। বিবাহ প্রজনন ও বংশ পরম্পরা রক্ষার সর্বোত্তম উপায়।

৩। বিবাহ যৌনক্ষুধা নিবারণের সর্বোত্তম উপায় যা সংশ্লিষ্ট রোগ থেকে মুক্ত।

৪। বিবাহের পর সন্তান আসে, ফলে মানুষের মধ্যে পিতৃত্ব ও মাতৃত্বের আশা-আকাঙ্ক্ষা পূরণ হয়।

৫। বিবাহ স্বামী-স্ত্রী উভয়ের নিরাপত্তা, আত্মতৃপ্তি ও সতীত্ব সংরক্ষণে সাহায্য করে। [৩]

 

কুরআন

আল্লাহ্‌ তাআলা বলেন : “আর এক নিদর্শন এই যে, তিনি তোমাদের জন্যে তোমাদের মধ্য থেকে তোমাদের সঙ্গিনীদেরসৃষ্টি করেছেন, যাতে তোমরা তাদের কাছে শান্তি পাওএবং তিনি তোমাদের মধ্যে পারস্পরিক সম্প্রীতি ও দয়া সৃষ্টি করেছেন। নিশ্চয়ইএতে চিন্তাশীল লোকদের জন্যে নিদর্শনাবলিরয়েছে”। [সূরা রূম ৩০:২১] [৪]

 

হাদিস

আবু হুরাইরা (রা.) হতে বর্ণিত, রসূলুল্লাহ্‌ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম বনলেছেন : “মেয়েদের চারটি গুণ বিবেচনা করে বিবাহ করা হয়; তার সম্পদ, তার বংশমর্যাদা, তার রূপ ও সৌন্দর্য এবং তার ধার্মিকতা। কিন্তু  তুমি দ্বীনদার মহিলাকেই প্রাধান্য দাও। নতুবা তুমি ক্ষতিগ্রস্ত হবে”। (সহি বুখারি : ৪৮০২ ও মুসলিম : ১৪৬৬)

 

উলামাদের অভিমত

ইমাম নবভী (রহ.) মুসলিমের ব্যাখ্যায় বলেন :

এই হাদিসটির সঠিক অর্থ হলো : রসূলুল্লাহ্‌ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম ওইসব জিনিসের কথা বলেছেন যেগুলো মানুষ সাধারণত চাই। কারণ তারা চারটি গুণ চাই। তাদের দৃষ্টিতে সর্বশেষ গুণ হয় ধার্মিকতা। কিন্তু তোমরা সঠিক পথের অনুসরণ তালাশ করো, তাই তোমরা ধার্মিকতা সন্ধান করো। এটা তোমাদের জন্য আদেশ নয়। এই হাদিসটি আমাদেরকে সর্বক্ষেত্রে ধার্মিক সঙ্গী সন্ধান করার প্রতি উদ্বুদ্ধ করছে, কারণ একজন মানুষ তার সঙ্গীদের সদাচরণ ও সৎপথ হতে লাভবান হয় এবং তাদের কুপ্রভাব থেকে নিরাপদ থাকে। [৫]

 

ওয়ালি অপরিহার্য

অধিকাংশ উলামার মত : মেয়ের বিবাহের বৈধতার জন্য তার ওয়ালি (অবিভাবক)-এর উপস্থিতি অপরিহার্য। ওয়ালি হবে পিতা, পিতার অনুপস্থিতিতে পুত্র, যদি পুত্র না থাকে তাহলে তার ভাই, অতঃপর ভাইয়ের ছেলে, অতঃপর চাচা, অতঃপর চাচার ছেলে, এভাবে পিতৃসূত্রে পুরুষ নিকটাত্মীয়। যদি কেউ না থাকে তাহলে ওয়ালি হবে কাজী বা বিচারক। আবু মুসা হতে বর্ণিত আছে, রসূলুল্লাহ্‌ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম বলেন : “ওয়ালি ছাড়া কোনো বিবাহ নেই”। (আবিদাউদ : ২০৮৫; তিরমিযি : ১১০১ ও ইবনে মাজাহ্‌ : ১৮৮১, আল্‌বানি হাদিসটিকে সহি বলেছেন)।

 

রসূলুল্লাহ্‌ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম আরও বলেন : “যদিকোনোনারীতারওয়ালিরঅনুমতিছাড়াবিবাহকরেতবেতারবিবাহবাতিল, বাতিল, বাতিল।এইরূপঅবৈধপন্থায়বিবাহিতনারীরসাথেসহবাসকরলেতাকেমোহরদিতেহবে।কারণস্বামীমোহরেরবিনিময়েতারলজ্জাস্থানকেব্যবহারকরেছে।যদিওলীগণবিবাদকরেন, তবেযারওলীনেইতারওলীদেশেরশাসক”।(আবুদাউদ: ২০৮৩; মুসনাদেআহ্মাদ: ২৪৪১৭; তিরমিযি: ১১০২; আলবানিহাদিসটিকেসহিবলেছেন, দেখুন: সাহিহুলজামি’ : ২৭০৯) []  

 

আরও দেখুন

স্বামী-স্ত্রীর অধিকার ও দায়িত্ব; স্ত্রীদের সাথে ব্যবহার; ইসলামের দৃষ্টিতে স্বামীর অধিকার; ইসলামের দৃষ্টিতে স্ত্রীর অধিকার;  

 

তথ্যসূত্র

[১] http://islamfuture.wordpress.com/2010/12/06/the-book-of-nikah-marriage/

[২] http://www.sunnah.com

[৩] http://islamfuture.wordpress.com/2010/12/06/the-book-of-nikah-marriage/

[৪] http://quran.com/30/21

[৫] http://islamqa.info/en/ref/34170

[৬] http://islamqa.info/en/ref/93967/marriage

600 Views
Correct us or Correct yourself
.
Comments
Top of page